শনিবার ২৫ মে ২০২৪, ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৌদি আরবে চালু হবে বাউবি ডিগ্রি প্রোগ্রাম

প্রকাশিত : ০৫:২৪ অপরাহ্ণ, ২ জুলাই ২০২২ শনিবার ৮৯ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সৌদি আরবে চালু হতে যাচ্ছে ডিগ্রি পর্যায়ের কোর্স। খুব শীঘ্রই এ কোর্স চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ূন আক্তার।

২৯ জুন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর সাথে এক অনলাইন সভায় তিনি এ কথা জানান। সভায় আগামী দিনে সৌদি আরবের প্রবাসীদের জন্য এসএসসি ও এইচএসসি প্রোগ্রামের পাশাপাশি ডিগ্রি/স্নাতক পর্যায়ের কোর্স চালু করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়া সৌদি আরব প্রবাসীদের চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন শর্ট কোর্স চালু করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়।

এ সময় দূতাবাসের মিশন উপপ্রধান আবুল হাসান মৃধা, ইকোনমিক কাউন্সেলর মুর্তুজা জুলকার নাঈন নোমান, শ্রম কাউন্সেলর রেজা-ই-রাব্বি, কাউন্সেলর হুমায়ূন কবির ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় কার্যক্রমের দূতাবাসের ফোকাল পয়েন্ট প্রথম সচিব (প্রেস) মোহাম্মদ ফখরুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ওপেন স্কুলের ডিন অধ্যাপক ড. সাবিনা ইয়াসমিন, স্কুল অব সোশ্যাল সাইন্সের ডিন অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর আলম, ইন্টারন্যাশনাল একাডেমিক উইংয়ের যুগ্ম পরিচালক সঙ্গীতা মোরশেদসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) জানান, সৌদি আরবে বর্তমানে প্রায় ২৬ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি বিভিন্ন খাতে কর্মরত রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের অর্থনীতির উন্নয়নে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স একটি গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে আসছে। সৌদি আরবের ভিশন-২০৩০ ও বাংলাদেশের ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দক্ষ-অদক্ষ প্রবাসীদের শিক্ষার মানোন্নয়ন একান্ত অপরিহার্য। সৌদি আরবে যুগোপযোগী ও অধিক দক্ষতাসম্পন্ন আধুনিক শ্রমবাজার গড়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাসের নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সৌদি আরবে বসবাসরত অভিবাসী শ্রমিকরা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় এসব শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে নিজের দক্ষতা ও যোগ্যতা বৃদ্ধির সুযোগ পাবেন; একই সাথে নিজেকে শিক্ষিত ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি বাংলাদেশে ফিরে গিয়েও দক্ষভাবে কাজ করতে পারবেন।

রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়কে সৌদি আরবে বিভিন্ন শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।



এই বিভাগের জনপ্রিয়

ইরানি বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিককে দীর্ঘদিন বন্দি রাখার পর মুক্তি দিয়েছে তেহরান। ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে যুক্তরাজ্য ৪০ কোটি পাউন্ড ইরানের কাছে হস্তান্তরের পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।     বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুক্তির পর নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরি যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছেন।  নাজানিন জাঘারি প্রায় ছয় বছর ধরে ইরানে বন্দিজীবন কাটিয়েছেন। সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।  নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরিকে বহনকারী প্লেন অক্সফোর্ডশায়ারের ব্রিজ নর্টন ব্রিটিশ সামরিক বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করে। এর আগে তারা ওমানে সাময়িক সময়ের জন্য যাত্রা বিরতি নেন।  তারা একসঙ্গেই প্লেন থেকে নেমে আসেন এবং বিমানবন্দরে প্রবেশের পর পর উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে হাত নাড়েন। এদিকে মার্কিন নাগরিকত্ব থাকা মোরাদ তাহবেজ নামে আরও একজনকেও কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।  বুধবার তাদের মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ত্রাস এবং প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।   এ বিষয় ইরানের গণমাধ্যম জানিয়েছে, এর আগে ইরানের কাছে ইসলামি বিপ্লবের আগে অর্থাৎ প্রায় ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে ব্রিটিশ সরকার তেহরানকে ৪০ কোটি পাউন্ড (৫২০ মিলিয়ন ডলার) প্রদান করেছে।  ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, এটি নিশ্চিত করতে পেরে আমি খুব খুশি, নাজানিন জাঘারি এবং আনোশেহ আশোরিকে অন্যায়ভাবে বন্দি রাখার দিন শেষ হয়েছে। তারা মুক্তি পেয়ে যুক্তরাজ্যে ফিরেছে।

ইরানি বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিককে দীর্ঘদিন বন্দি রাখার পর মুক্তি দিয়েছে তেহরান। ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে যুক্তরাজ্য ৪০ কোটি পাউন্ড ইরানের কাছে হস্তান্তরের পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুক্তির পর নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরি যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছেন। নাজানিন জাঘারি প্রায় ছয় বছর ধরে ইরানে বন্দিজীবন কাটিয়েছেন। সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরিকে বহনকারী প্লেন অক্সফোর্ডশায়ারের ব্রিজ নর্টন ব্রিটিশ সামরিক বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করে। এর আগে তারা ওমানে সাময়িক সময়ের জন্য যাত্রা বিরতি নেন। তারা একসঙ্গেই প্লেন থেকে নেমে আসেন এবং বিমানবন্দরে প্রবেশের পর পর উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে হাত নাড়েন। এদিকে মার্কিন নাগরিকত্ব থাকা মোরাদ তাহবেজ নামে আরও একজনকেও কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বুধবার তাদের মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ত্রাস এবং প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এ বিষয় ইরানের গণমাধ্যম জানিয়েছে, এর আগে ইরানের কাছে ইসলামি বিপ্লবের আগে অর্থাৎ প্রায় ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে ব্রিটিশ সরকার তেহরানকে ৪০ কোটি পাউন্ড (৫২০ মিলিয়ন ডলার) প্রদান করেছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, এটি নিশ্চিত করতে পেরে আমি খুব খুশি, নাজানিন জাঘারি এবং আনোশেহ আশোরিকে অন্যায়ভাবে বন্দি রাখার দিন শেষ হয়েছে। তারা মুক্তি পেয়ে যুক্তরাজ্যে ফিরেছে।

© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT