বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ জ্বালানি তেলের দাম যুক্তরাষ্ট্রে পাঁচ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন ◈ হোটেলে নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ, ‘প্রেমিক’ গ্রেফতার ◈ সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত ‘অসত্য’ কথা বলেছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ রাশিয়ার বিমান ঘাঁটির ভয়াবহ ক্ষতি ◈ সিঙ্গাপুর ছেড়ে নতুন গন্তব্যে শ্রীলংকার সাবেক প্রেসিডেন্ট ◈ ভিপি নুরকে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে হাজিরের নির্দেশ, অন্যথায় পরোয়ানা ◈ নতুন অস্ত্র পাচ্ছে ইউক্রেন, ৮০ কিলোমিটার দূর থেকে গুঁড়িয়ে দেবে লক্ষ্যবস্তু ◈ রাশিয়া থেকে ৩ লাখ টন গম আমদানি করবে সরকার ◈ নয়াপল্টনে বিএনপির সমাবেশ শুরু, ‘টার্গেট’ বড় ‘শোডাউন’ ◈ ‘শেষ ইউক্রেনীয় জীবিত থাকা পর্যন্ত ন্যাটো লড়াই করবে’

লতিফ সিদ্দিকীর কাছ থেকে উদ্ধার করা জমিতে শেখ রাসেল শিশু পার্ক

প্রকাশিত : ০৪:১২ অপরাহ্ণ, ২৭ জানুয়ারি ২০২১ বুধবার ২১২ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

টাঙ্গাইলে সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী অবৈধভাবে দখলে রাখা ৬৬ শতাংশ উদ্ধার করা জমিতে শিশু পার্ক করার উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। পার্কটি বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের নামে টাঙ্গাইল শেখ রাসেল শিশুপার্ক নামকরণ করার প্রস্তাবনা করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে জেলা প্রশাসন বুধবার জেলার বিভিন্নস্তরের মানুষের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছে।

রবিবার শহরের জেলা সদর সড়কের আকুর টাকুর পাড়ায় সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সাবেক সদস্য আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর দখলে থাকা প্রায় ৫০ লাখ টাকা মূল্যের দুই বিঘা (৬৬ শতাংশ) জমি অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করে জেলা প্রশাসন। এ সময় ওই জমিতে লতিফ সিদ্দিকীর নির্মিত স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হয়। উদ্ধার করার পর জমিটিতে লাল নিশান এবং এটি “ক” তালিকাভুক্ত অর্পিত সম্পত্তি বলে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়া হয়।
জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গণি জানান, উদ্ধার করা জমিতে শেখ রাসেলের নামে একটি শিশু পার্ক করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বুধবার মতবিনিময় সভা করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী ১৯৭২ সালে সরকারের কাছ থেকে ওই জমিটি ইজারা নেন। ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত তিনি ইজারার টাকাও পরিশোধ করেন। এরপর দীর্ঘসময় তিনি ইজারার টাকা পরিশোধ না করে সাব-জজ আদালতে মালিকানা দাবি করে মামলা করেন। মামলার রায় লতিফ সিদ্দিকীর পক্ষে যায়। পরে জেলা জজ আদালতে সরকার পক্ষ আপিল করে, সেখানেও লতিফ সিদ্দিকী ডিক্রি প্রাপ্ত হন। পরে সরকার পক্ষ হাই কোর্টে রিভিশন মামলা করেন, সেখানে লতিফ সিদ্দিকী হেরে যান।
পরে লতিফ সিদ্দিকী হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করেন। সেখানে সরকার পক্ষ ডিক্রি প্রাপ্ত হন। লতিফ সিদ্দিকীকে ওই জমির ওপর তার নির্মিত স্থাপনা অপসারণের জন্য গত ৩১ ডিসেম্বর প্রশাসন নোটিশ দেয়। নোটিশ পাওয়ার পরও তিনি স্থাপনা অপসারণ না করায় উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে জমি উদ্ধার করা হয়।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT