শনিবার ২৮ মে ২০২২, ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ কুকুর ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষণে বিদেশে গিয়ে ‘লাপাত্তা’ ২ পুলিশ ◈ ‘আমরা আর যুদ্ধ করব না’, জানালেন ক্ষুদ্ধ ইউক্রেনীয় সেনারা ◈ ভারতে গ্রেফতার বাংলাদেশের আর্থিক খাতের আলোচিত জালিয়াত, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক এমডি প্রশান্ত কুমার হালদার ওরপে পিকে হালদারকে ১১ দিনের বিচার বিভাগীয় রিমান্ডে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতার একটি আদালত। পিকের সঙ্গে আরও পাঁচজন আসামি রয়েছেন। আগামী ৭ জুন পর্যন্ত সবার এই রিমান্ড চলবে। শুক্রবার কলকাতার নগর দায়রা আদালতের বিচারপতি সৌভিক ঘোষ এ আদেশ দেন। কয়েক হাজার কোটি টাকা আত্মসাত করে বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে যাওয়া পিকে হালদার গত ১৪ মে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশপরগনা জেলার অশোকনগর থেকে গ্রেফতার হন। পিকেসহ ছয়জনকে ওই দিন গ্রেফতার করে ভারতের কেন্দ্রীয় সংস্থা ইনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। গ্রেফতারের পর পিকে হালদারকে আদালতে হাজির করলে প্রথম দফায় তার ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। সেই রিমান্ড শেষে গত ১৭ মে তাকে আদালতে হাজির করলে তাকে দ্বিতীয় দফায় আরও ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়। এক নারীসহ মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে ‘হাওয়ালা’ পদ্ধতিতে বাংলাদেশ থেকে ভারতে টাকা পাচারের অভিযোগে ২০০২ সালের আইনে মামলা করা হয়। পিকে হালদার ও তার সহযোগীরা পশ্চিমবঙ্গে বিভিন্ন ব্যবসা ও সম্পত্তিতে এসব অর্থ বিনিয়োগ করেছেন। ◈ রোহিঙ্গাদের অবশ্যই মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ◈ লিপু হত্যাকাণ্ড: রহস্য অজানা, খুনিরা অধরা ◈ গুরুত্বপূর্ণ রেলওয়ে জংশনের দখল নিয়ে নিল রাশিয়া ◈ ‘বিশেষ দক্ষ কমান্ডারদের ব্যবহার করে শহরটি দখল করেছে রাশিয়া’ ◈ ২৬ জনকে গ্রেফতার, নানা কৌশলে ছিনতাই-চাঁদাবাজি করত তারা ◈ গাঁজাসহ দম্পতি গ্রেফতার ◈ হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবি ছাত্রদলের সাবেক নেতা ও ১১ ছাত্রসংগঠনের

“তথ্য আামার অধিকার জানতে হবে সবার” কুষ্টিয়ায় ডিপিএফ’র উদ্যোগে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবসে ভার্চুয়াল সভা

প্রকাশিত : ০৯:৩৮ অপরাহ্ণ, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ মঙ্গলবার ১৫৯ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

“তথ্য আামার অধিকার জানতে হবে সবার” শ্লোগানে এবং “তথ্য আামার অধিকার জানা আছে কি সবার” প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে কুষ্টিয়ায় ডিস্ট্রিক্ট পলিসি ফোরাম (ডিপিএফ) এর উদ্যোগে এবং প্লাটফর্মস ফর ডায়লগ (পিফরডি) প্রকল্পের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ০৩টা ৩০ মিনিটে ডিপিএফ কুষ্টিয়ার সভাপতি মোছা: মাহবুবা বেগম এর সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন উপ পরিচালক স্থানীয় সরকার, মৃনাল কান্তিদে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোছা: শারমিন আখতার সহ বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের দপ্তর প্রধানগণ। দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরে জেলার শীর্ষস্থানীয় বিভিন্ন শ্রেনী প্রেশার ব্যক্তিবর্গের অংশগ্রহণের মধ্যদিয়ে আয়োজনটি প্রানবন্তও সমৃদ্ধ হয়ে উঠে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির উদ্বোধনী বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হওয়া এই ভার্চুয়াল সভায় ডিপিএফ কমিটির সদস্য রত্না বাগচির সঞ্চালনায় এবং ডিপিএফ কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামানের শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর দিবসটি মূল প্রতিপাদ্য ও তাৎপর্য তুলে ধরে ধারণাপত্র পাঠ করেন কমিটির সহ-সভাপতি সাংবাদিক হাসান আলী। মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে স্কুল কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, বিভিন্ন সরকারি বে-সরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মী, সামাজিক সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সরব অংশগ্রহণের মাধ্যমে তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নের বাধা বা চ্যালেঞ্জ এবং তার উত্তোরণ ও সমাধানের সুপারিশ তুলে ধরা হয়। এসময় বক্তারা বলেন, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের অভিযাত্রায় টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট অর্জনে কাউকে পিছনে ফেলে নয় সকলকে সাথে নিয়ে পথচলায় জনগণের অংশীদারিত্ব নিশ্চিতে অবাধ তথ্য প্রবাহ ব্যতীত বিকল্প কোন পথ নেই। সেই লক্ষ্যে ২৯ মাচর্, ২০০৯ তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ পাশ হয়। ৫ এপ্রিল, ২০০৯ এই আইনটি মহামান্য রাষ্ট্রপতির সম্মতি লাভ করে এবং ৬ এপ্রিল, ২০০৯ আইনটি বাংলাদেশ গেজেটে প্রকাশিত হয়। বাংলাদেশের সংবিধানে চিন্তা, বিবেক ও বাক-স্বাধীনতা নাগরিকগণের মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত। সেকারণে রাষ্ট্র কর্তৃক জনগণের কল্যাণে গৃহীত যে কোন নীতি, কর্মসূচী ও কর্মকান্ডের বিষয়ে জনগণের স্পষ্ট ধারণা থাকা আবশ্যক। নাগরিক চিন্তার ক্ষেত্র প্রসারণে অভিমত ব্যক্ত করার স্বাধীনতার জন্য তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ একটি অন্যতম রক্ষাকবচ। তথ্য অধিকার আইনের দর্শনকে বাস্তবে রূপদান করতে এর প্রায়োগিক ক্ষেত্রটিকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলা আবশ্যক। অন্যথায় এই আইনের উপযোগিতা বাংলাদেশের নাগরিক জীবনে যথার্থভাবে অনুভূত হবেনা। চাহিদা অনুযায়ী অবাধ তথ্য প্রবাহের মাধ্যমে নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠাই হবে গণতান্ত্রিক সমাজ বিনির্মাণের দৃষ্টিভঙ্গির অন্যতম প্রধান নির্ধারক। সরকারী, বে-সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও এনজিওদের কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে দুর্নীতি হ্রাস করে সুশাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে টেকসই উন্নয়নের অব্যহত ধারায় জনসম্পৃক্ততায় আগ্রহ সৃষ্টি করা। অবাধ তথ্য প্রবাহেই জনগণের তথ্যের অধিকার নিশ্চিতকরণ সম্ভব। বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী জনগণ প্রজাতন্ত্রের সকল ক্ষমতার মালিক এবং চিন্তা, বিবেক ও বাক-স্বাধীনতা নাগরিকের অন্যতম মৌলিক অধিকার। তথ্য অধিকার আইন জনগণের এই মৌলিক অধিকারের স্বীকৃতি দিয়ে তথ্য অধিকার বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগণের ক্ষমতায়নের পথ সুগম করেছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT