শনিবার ২৫ মে ২০২৪, ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘুসের টাকা ফেরত দিচ্ছেন সেই তহশিলদার

প্রকাশিত : ০৭:১৮ অপরাহ্ণ, ৭ জুলাই ২০২২ বৃহস্পতিবার ৯২ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে দুস্থ ও ভূমিহীনদের প্রধানমন্ত্রীর ঘর দেওয়ার কথা বলে নেওয়া কয়েক লাখ টাকা ঘুস নেন উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) মো. নজরুল ইসলাম। এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হলে ভুক্তভোগীদের মাঝে ঘুসের টাকা ফেরত দেওয়া শুরু করেছেন।

মো. নজরুল ইসলাম উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) হিসেবে কর্মরত আছেন। তবে ঘুসের টাকা ফেরত দেওয়ার বিষয়টি ভুক্তভোগীরা স্বীকার করলেও সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন তহশিলদার নজরুল।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) ‘গৃহহীনদের সঙ্গে তহশিলদারের প্রতারণার অভিযোগ’ শিরোনামে অনলাইনে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপরই বিষয়টি সর্বত্র জানাজানি হলে ঘুস নেওয়া টাকা ফেরত দেওয়া শুরু করেন ওই তহশিলদার।

এদিকে বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেতে দেওয়া ঘুসের টাকা ফেরত পাওয়ার পর মির্জাগঞ্জে এ নিয়ে চলছে ব্যাপক সমালোচনার ঝড়।

ভুক্তভোগী উত্তর আমড়াগাছিয়া গ্রামের মো. মজিবর হাওলাদার বলেন, ঘর দেওয়ার কথা বলে টাকা নেওয়ার বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের পর তহশিলদার নজরুল স্যার অফিসে খবর দিয়ে নিয়ে আমার ১০ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন।

একই গ্রামের মো. মোতালেব মিয়া জানান, ঘর দেবে বলে আমার কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা নেন তহশিলদার। দীর্ঘদিন যাবত অফিসে ধরনা ধরেও ঘর না পেয়ে আপনাদের (সাংবাদিকদের) কাছে অভিযোগ করেছি জেনে অফিসে ডেকে নিয়ে আমার টাকা ফেরত দেন।

ওই গ্রামের জতিন গোলদার বলেন, আমার ছেলেসহ সাতজনকে ঘর দেওয়ার জন্য আমার মাধ্যমে ৭০ হাজার টাকা নেন নজরুল তহশিলদার। আপনারা (সাংবাদিকরা) জানার পর ৪ জনের টাকা ফেরত দিয়েছেন। এখনো আমার ছেলের টাকাসহ ৩ জনের টাকা স্যারের কাছে পাওনা আছে। পরে টাকা ম্যানেজ হলে বাকি টাকা দিয়ে দেবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

ঘুসের টাকা ফেরত দেওয়ার বিষয়ে উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা (তহশিলদার) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আমি কারো কাছ থেকে ঘর দেওয়ার কথা বলে টাকা নেইনি এবং ফেরতও দেইনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসা. তানিয়া ফেরদৌস মোবাইল ফোনে বলেন, আমি ভুক্তভোগীদের ডেকেছিলাম। তারা টাকা ফেরত পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।



© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT