শুক্রবার ০২ অক্টোবর ২০২০, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

কুষ্টিয়া দিশা টাওয়ার অডিটরিয়ামে আনন্দঘন ও জমকালো পরিবেশে

প্রকাশিত : ০৮:২৩ অপরাহ্ণ, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শনিবার ৯২৫ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

খুলনা বিভাগের একমাত্র ডিজিটালাইজড শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কুষ্টিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ছাত্রছাত্রীদের উৎসাহ প্রদানের জন্য নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ, ওয়েস্টার্ন স্কলার্স ফাউন্ডেশন’র বৃত্তি, ফরেন ট্যুরের মনোনীত শিক্ষার্থীদের নাম ঘোষণা, নলেজ সার্চের গ্রান্ড ফিনাল এবং ২০১৮ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনি ও জেএসসি পরীক্ষায় এ+ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জানা যায়, গতকাল শনিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় কুষ্টিয়া শহরের পরিচ্ছন্ন, রুচিশীল ও মনোরম পরিবেশ দিশা টাওয়ার অডিটোরিয়ামে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় অত্যন্ত আনন্দঘন ও জাকঁজমকময় অবস্থায় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের

মিলন মেলায় পরিণত হয়। পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। স্কুলের সম্মানিত সুযোগ্য চেয়ারম্যান মোঃ মোজাম্মেল হক রাসেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের মান্যবর চেয়ারম্যান জনাব মোঃ আতাউর রহমান আতা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ ওবাইদুর রহমান, প্যানেল মেয়র জনাব মোঃ মতিয়ার রহমান, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মোঃ গোলাম মওলা, ডেপুটি কমান্ডার জনাব মোঃ রফিকুল ইসলাম এবং কুষ্টিয়া সাংবাদিকের অগ্রদুত কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি জনাব আলহাজ্ব মোঃ রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব। আরো উপস্থিত ছিলেন এডুকেয়ার শিক্ষা পরিবারের পরিচালক জনাব মোঃ সোহেল রানা মানিক, জনাব মোঃ সামসুল হক, জনাব

গোলাম মওলা, চীফ কনসালটেন্ট জনাব মোঃ রেজাউর রহমান, প্রিন্সিপাল মিসেস দিলরুবা পারভীন। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা পর্ব শেষে কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষায় ফলাফল ও পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। প্লে থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত বিজয়ী কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে পরীক্ষার ফলাফল ও পুরস্কার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বর্তমান যুগ প্রতিযোগিতার যুগ। জীবনে মানুষের মত মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার জন্য লেখাপড়ার কোন বিকল্প নেই। আমাদের দেশে ১৬ কোটি মানুষ থাকলেও প্রকৃত সৎ মানুষের অভাব রয়েছে। আমাদের শিশুদের সৎ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারলেই তারা বড় হয়ে এদেশের উন্নয়নে ভুমিকা রাখতে পারবে। প্রতিষ্ঠানের ফলাফল ও পাঠ কার্যক্রমে ছাত্র-ছাত্রীদের সফলতায় শিক্ষকমন্ডলীর ভূমিকার

প্রশংসা করেন অভিভাবক ও অতিথিবৃন্দ। এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের সুযোগ্য ও সম্মানীত চেয়ারম্যান এমএইচ রাসেল বলেন, এক বিংশ শতাব্দির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রথম সোপান হল শিক্ষা। সুশিক্ষা ছাড়া কোন জাতি উন্নতি লাভ করতে পারে না। শিক্ষার মাধ্যমেই তৈরি হয় সৎ, দেশপ্রেমিক ও মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন সুনাগরিক। শিক্ষা ছাড়া মানুষের মধ্যে দেশপ্রেম, মানবতা ও নৈতিক মূল্যবোধের বিকাশ ঘটানো সম্ভব নয়। একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে দেশকে আধুনিক ও ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপে গড়ার ক্ষেত্রে যুগোপযোগী ও প্রযুক্তি নির্ভর মানসম্মত শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। শিক্ষার ক্ষেত্রে অনুসরণ করা হচ্ছে অংশগ্রহণমূলক পদ্ধতি। নিয়মিত বিভিন্ন ধরণের আধুনিক পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে এ প্রতিষ্ঠানকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত

করার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখছি। ‘সহ¯্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা’ অর্জন এবং ‘ভিশন-২০২১’ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক ও পরিচালনা পরিষদের সবাই একযোগে কাজ করে এ প্রতিষ্ঠানকে একটি সর্বাধুনিক বিশ্বমানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করবোই করবো, ইনশাআল্লাহ। মহান আল্লাহ আমার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করবেন বলে আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী। আমাদের এই প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য ও চিন্তাধারা ব্যতিক্রমধর্মী। একটি শিক্ষার্থীর মনের ভাব আকার ইঙ্গিতে শিক্ষক যাতে বুঝতে পারে তার মনের ভাষা, ঠিক সেভাবেই শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান কার্যক্রম এই প্রতিষ্ঠান থেকে দেওয়া হয়। সকলের সহযোগিতায় এ স্কুলটি জেলার সেরা স্কুল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে, আমি বিশ্বাস করি অচিরেই সকলের সহযোগিতায় কুষ্টিয়া জেলা পেরিয়ে সারাদেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করবে এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ। স্কুলের পাঠদান পদ্ধতি সম্পর্কে ও আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্পন্ন ও শিক্ষা উপযোগী পরিবেশ পরিদর্শন করে অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের আগামীদিনের ভবিষ্যত্ উল্লেখ করে অন্যান্য বক্তারা বলেন, নিজেদের মেধাকে বিকশিত করতে হলে স্ব-শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। শিক্ষার্থীদের জীবনের লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্যে পড়াশুনায় অধিকতর মনোযোগী হওয়ার আহবান জানান। বক্তারা ক্যারিয়ার সচেতন হবারও পরামর্শ দেন। মূল্যবান সময়ের অপচয় না করতে এবং প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হবার তাগিদ দেন শিক্ষার্থীদের। সরেজমিনে গিয়ে আরও জানা যায়, “মায়েদের আস্থা সোনামনিদের সুশিক্ষা” এ শ্লোগানকে ধারণ করে ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় কুষ্টিয়া শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত খুলনা বিভাগের একমাত্র ডিজিটালাইড ও স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান “এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ”। স্কুলটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষাদান করে আসছে। বিগত দিনগুলোতে বিদ্যালয় থেকে অসংখ্য মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা সফলতার সহিত সমাপ্ত করে উচ্চ শিক্ষার জন্য দেশের বিভিন্ন কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ, প্রকৌশলী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করছে। বর্তমান বিশ্বায়নের এই যুগে এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ একাধিক স্বনামধন্য ছাত্র-ছাত্রী যাহারা স্ব-স্ব কর্মক্ষেত্রে সুনামের সাথে প্রতিষ্ঠিত। এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ কুষ্টিয়া জেলাসহ অন্যান্য জেলার সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছে। বাংলা ও ইংরেজী এই দুটি ভার্সন চালু রয়েছে এই স্কুলে। একটি বিশ^মানের পূর্ণাঙ্গ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যে সমস্ত বৈশিষ্ট্য থাকা প্রয়োজন তার সবগুলোই বিদ্যমান রয়েছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। এক ঝাঁক দক্ষ ও প্রশিক্ষিত শিক্ষকমন্ডলীর সমন্বয়ে পরিচালিত হচ্ছে এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ। আধুনিক ক্যাম্পাসে বিশ^মানের প্রযুক্তির সমন্বয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানো হয় এখানে। রয়েছে সার্বক্ষণিক নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সর্বাধুনিক মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রতিটি শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানো হয়। প্রতিষ্ঠানে রয়েছে সর্বাধুনিক বিজ্ঞানাগার, সুসজ্জিত লাইব্রেরি ও কম্পিউটার ল্যাব । শিক্ষার্থীদের নিজস্ব ক্যান্টিনের মাধ্যমে প্রতিদিন স্বাস্থ্য সম্মত টিফিন ব্যবস্থা। রয়েছে নিরাপদ খাবার পানির ব্যবস্থা। প্রতিটি শ্রেণীকক্ষসহ সম্পূর্ণ ক্যাম্পাস সার্বক্ষণিক সিসি ক্যামেরা দ্বারা পর্যবেক্ষণ করা হয়। রয়েছে শিক্ষার্থীদের জন্য নিয়মিত ইনডোর ও আউটডোর খেলাধুলার ব্যবস্থা। সমৃদ্ধ লাইব্রেরী ও সর্বাধুনিক শিক্ষা উপকরণ নিশ্চিত করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের আনা-নেওয়ার জন্য রয়েছে বাস-মাইক্রোবাসসহ নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা। স্কুলের রয়েছে নিজস্ব ওয়েব সাইট। যার ফলে এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের ইনফরমেশন টেকনোলোজিতে আরো একধাপ এগিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের নিয়মিত শরীর চর্চার পাশাপাশি স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে দেশে-বিদেশে শিক্ষা সফরের সুযোগ। সৃজনশীল প্রতিভা অন্বেষণসহ ডেবেটিং, কুইজ প্রতিযোগিতা, ছবি আঁকা প্রতিযোগিতা, বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করা হয় প্রতি বছর। এছাড়া নিয়মিত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক চর্চার ব্যবস্থা। শিক্ষার্থীদের একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক শিক্ষা প্রদান করা হয়। শিক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনা করা হয় নিজস্ব সফ্টওয়্যার (ঊওগঝ) দ্বারা পরিচালিত হয়। ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহিত করার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার বিতরণের ব্যবস্থা। শিক্ষার্থীদের মাতৃ ¯েœহে লালন করা হয় এখানে। নিয়মিত অভিভাবদের সাথে মত বিনিময় করা হয়। আয়োজন করা হয় শিক্ষার্থী, স্কুল কর্তৃপক্ষ ও অভিভাবকদের নিয়ে অভিভাবক সমাবেশ। সব দিক বিবেচনায় এখন কুষ্টিয়াবাসীর একমাত্র আস্থার প্রতিক হয়ে উঠেছে এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ। এখানে শিক্ষকরা আন্তরিকতার সঙ্গে পড়ান। পাশাপাশি শিক্ষার্থী, অভিভাবকদের সঙ্গে সমন্বয় সাধন করেন। সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড, খেলাধুলাসহ সব ধরনের কাজে তারা চর্চা ও উৎসাহ প্রদান করেন। এ কারণে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষাসহ সব ক্ষেত্রে ধারাবাহিকভাবে সফল হয়ে আসছে। এখানে শিক্ষা বিস্তারে আধুনিক সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা সংযোজন করেছেন স্কুলের পরিচালনা কমিটি। এ ছাড়া জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রতিবছরই শতভাগ পাসের রেকর্ড গড়ছে। শিক্ষকদের প্রতিদিনের কার্যক্রম, পাঠদান পদ্ধতি, শতভাগ শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি, পরীক্ষার ফলাফল ও ঝড়েপড়া শিক্ষার্থী কম হওয়া এডুকেয়ার আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অনন্য বৈশিষ্ট্য।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT