শনিবার ১১ জুলাই ২০২০, ২৭শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনায় বিপর্যস্ত অর্থনীতি জিডিপির গতি বৃদ্ধিই বড় চ্যালেঞ্জ আগামী তিন বছর ৮ শতাংশের উপরে প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য

প্রকাশিত : ০৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ, ৪ জুন ২০২০ বৃহস্পতিবার ৩৮ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

করোনা পরিস্থিতিতে বিপর্যয়ে পড়েছে দেশের সার্বিক অর্থনীতি। কৃষি, শিল্প ও সেবা সব ক্ষেত্রই যাচ্ছে কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে। এ অবস্থায় জিডিপি (মোট দেশজ উৎপাদন) প্রবৃদ্ধির গতি বাড়ানোই বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে। এই বাস্তবতায় আগামী তিন বছরের নয় শতাংশও প্রবৃদ্ধির স্বপ্ন দেখতে পারছে না সরকার।

২০২২-২৩ অর্থবছরে গিয়ে ৮ দশমিক ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক এক প্রক্ষেপণ অনুযায়ী ২০২১-২২ অর্থবছরে ৮ দশমিক ৩ শতাংশ এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ শতাংশ অর্জন করার লক্ষ্য রয়েছে।

সেই সঙ্গে অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ সূচকগুলোয় আগামী তিন বছরে কোথায় নিয়ে যেতে চায় সরকার তারও একটি প্রক্ষেপণ করা হয়েছে। যদিও এই লক্ষ্যমাত্রা কতটুকু বাস্তবসম্মত, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের সাবেক মুখ্য অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, প্রবৃদ্ধি অর্জনের মূল চালিকাশক্তিই হচ্ছে রেমিটেন্স, বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক সৃজনশীল উদ্ভাবন এবং ডুয়িং বিজনেস পরিস্থিতির সঙ্গে যুক্ত বিষয়গুলোর উন্নতি করা। করোনা শুরুর আগে থেকেই রেমিটেন্স ছাড়া অর্থনীতির অন্য সূচকগুলোর অবস্থা ভালো ছিল না। ব্যক্তি বিনিয়োগ ছিল না বললেই চলে। ক্যাপিটাল মেশিনারিজ আমদানি কম ছিল। ডুয়িং বিজনেস পরিবেশের কোনো উন্নতি দেখা যায়নি। তার মধ্যে করোনা আসায় পুরোপুরি বিপর্যয়ের মধ্যে পড়েছে দেশের অর্থনীতি। এ অবস্থায় আগামী তিন অর্থবছরই টানা ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের লক্ষ্য নির্ধারণ ঠিক হয়নি।

জানতে চাইলে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম যুগান্তরকে বলেন, করোনার মতো ভয়াবহ দুর্যোগ অনেক হিসাব-নিকাশ বদলে দিয়েছে। বিশ্বব্যাপী অর্থনীতিকে তছনছ করে দিয়েছে। তাই এই মুহূর্তে জিডিপি প্রবৃদ্ধি নিয়ে চিন্তা করা হচ্ছে না। সেই সুযোগও নেই। এখন প্রয়োজন মানুষের জীবন রক্ষার জন্য স্বাস্থ্য খাতে সর্বোচ্চ মনোযোগ দেয়া। আগামী বাজেটেও করোনা মোকাবেলাকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। বাস্তবতা বিবেচনায় বর্তমান পরিস্থিতিতে অর্থনীতির চাকা সচল রাখাই এখন বড় কথা এবং চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সূত্র জানায়, গত মে মোসে ‘মিডিয়াম টার্ম ম্যাক্রোইকোনমিক ফ্রেমওয়ার্ক (২০২০-২১ থেকে ২০২২-২৩)’ আপডেট করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। সেখানে ২০২২-২৩ অর্থবছরে টাকার অঙ্কে জিডিপির আকার ধরা হয়েছে ৪০ লাখ ৪৫ হাজার ৬৪৫ কোটি টাকা। তার আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে ধরা হয়েছে ৩৫ লাখ ৮৩ হাজার ৩৯২ কোটি টাকা।

২০২০-২১ অর্থবছরে ৩১ লাখ ৭১ হাজার ৮২৪ কোটি টাকা। এ ছাড়া দেশের মানুষের মাথাপিছু আয়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছে ২০২২-২৩ অর্থবছরে দুই হাজার ৮৯৪ দশমিক ২৪ ডলার। ২০২১-২২ অর্থবছরে দুই হাজার ৫৯৫ দশমিক ৪৭ ডলার এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে দুই হাজার ৩২৬ ডলার অর্জনের লক্ষ্য ধরা হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, দেশের মূল্যস্ফীতির লাগাম টানতে চায় সরকার। এ জন্য আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরে লক্ষ্যস্ফীতি ৫ দশমিক ২ শতাংশের মধ্যে ধরে রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া ২০২১-২২ অর্থবছরে ৫ দশমিক ৩ এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে ৫ দশমিক ৪ শতাংশে বেঁধে রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের লক্ষ্য অনুযায়ী, আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরে রাজস্ব আদায় হবে চার লাখ ৯২ হাজার ৭৬০ কোটি টাকা। যা ২০২১-২২ অর্থবছরে চার লাখ ৩১ হাজার ৭৯৯ কোটি টাকা এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে তিন লাখ ৭৮ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য রয়েছে। এর মধ্যে কর রাজস্বের লক্ষ্য ধরা হয়েছে পর্যায়ক্রমে চার লাখ ৪৯ হাজার ৬৭ কোটি টাকা, তিন লাখ ৯৩ হাজার ৪৫৬ কোটি টাকা এবং তিন লাখ ৪৫ হাজার কোটি টাকা।

আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরে মোট বিনিয়োগের লক্ষ্য ধরা হয়েছে ১৪ লাখ ৪০ হাজার ৮৯৭ কোটি টাকা। তার আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে ১২ লাখ ৩৭ হাজার ২৭৪ কোটি টাকা এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে ১০ লাখ ৬১ হাজার ১৬৬ কোটি টাকা।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের প্রক্ষেপণ অনুযায়ী আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরে রফতানির লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৫১ দশমিক ৫৭ বিলিয়ন ডলার, ২০২১-২২ অর্থবছরে ৪৬ দশমিক ৪৮ বিলিয়ন ডলার এবং ২০২০-২১ অর্থবছরে ৪১ দশমিক ৯৫ বিলিয়ন ডলার। এ ছাড়া আমদানির লক্ষ্য ধরা হয়েছে যথাক্রমে ৬৩ দশমিক ৪২ বিলিয়ন ডলার, ৫৯ দশমিক ২৮ বিলিয়ন ডলার এবং ৫৪ দশমিক ৮৮ বিলিয়ন ডলার।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT