শুক্রবার ০২ অক্টোবর ২০২০, ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঈদ সংখ্যার জন্য একটা উপন্যাস লিখছি -আবুল হায়াত

প্রকাশিত : ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, ২ মে ২০২০ শনিবার ৯৮ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

অভিনেতা-নির্মাতা আবুল হায়াত। করোনা ভাইরাসে সবার মতো তিনিও ঘরবন্দি আছেন। গেল ১৮ই মার্চ থেকে তিনি বাসায় থাকছেন বলে জানান। এ সময়ে বাসায় কী করছেন? এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, লেখালেখি করি, বই পড়ি, সিনেমা দেখি। রুমেই হাঁটাহাটি করি। কী লিখেছেন? তিনি বলেন, ঈদ সংখ্যার জন্য একটা উপন্যাস লিখছি। এছাড়া রেডিওর জন্য একটা নাটক লেখার ইচ্ছে আছে।
সম্প্রতি কোনো সিনেমা দেখেছেন? আবুল হায়াত বলেন, ‘ছেলে কার’, ‘প্রশ্ন’, ‘বেলা শেষে’, ‘সোনার পাহাড়’, ‘রাইকমল’সহ বেশ কিছু ছবি দেখা হয়েছে।

বাংলা ফিল্মই বেশি দেখি। ইংলিশ ফিল্ম খুব বেশি দেখি না। বর্তমানে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে যেসব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, সেগুলো কি যথেষ্ট বলে মনে করেন ? তিনি বলেন, কিছু পদক্ষেপ আমার মনে হয় একটু দেরি করে নেয়া হয়েছে। কিছু পদক্ষেপ নেয়ার ব্যাপারে সরকার দ্বিধার মধ্যে আছে, আমার ধারণা আরো কঠোর পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। কারণ এই দেশের মানুষ সম্পর্কে তো আমরা জানি। তাদের বুঝাতে গেলে বুঝতেও টাইম লাগে, মানতেও চায় না; সুতরাং আমার মনে হয় আরো কঠোর পদক্ষেপ নেয়া দরকার। আমি মনে করি এখনো সময় আছে। এছাড়া এত পোশাককর্মী এই সময়ে কাজ করছে। এ রকম কিছু বিষয় একটু দৃষ্টিকটু লাগে আর-কি। এই সময় সবাই মিলে এক সঙ্গে চিন্তা-ভাবনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। যদি কঠিন শাসন করতে হয়, তাহলে তা করা দরকার। এখানে তো কেউ কারো নিজস্ব বেনিফিটের জন্য কাছ করছেন না, জনগণের বেনিফিটের জন্য শাসন করা হচ্ছে। সুতরাং যতটা কঠোর হওয়া দরকার ততটা কঠোর হতে হবে বলে মনে করি আমি। টিভি নাটকের গুণগত পরিবর্তন কতটুকু হয়েছে বলে মনে করেন? এই বর্ষীয়ান অভিনেতা বলেন, এখন টেকনিক্যাল যে রকম উন্নতি হয়েছে, সে রকম কোয়ালিটির পতন হয়েছে । বিশেষ করে প্যাকেজ ইন্ডাস্ট্রির কথা আমি বলব, এখানে কোয়ালিটির পতনটা মারাত্মক। এর জন্য কোন বিষয়গুলো দায়ী বলে বিবেচনা হতে পারে? তিনি বলেন, বিভিন্ন সমস্যা রয়েছে। যেমন ডিরেক্টর ও প্রডিউসারদের এক ধরনের সিন্ডিকেট রয়েছে, সেগুলো ভাঙতে হবে। তারপর চ্যানেলগুলো প্রোগ্রাম চালানোর পরে মানুষের কাছ থেকে যেন প্রয়োজনীয় ফিডব্যাক পায়; যেন টাকা পায়, তার ব্যবস্থা তাদের করতে হবে। কারণ টাকাটা নিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন এজেন্সি। এর থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। আর মেকিংয়ের যে বিষয়টা, সেখানে ডিরেক্টরের হাত ভালো হলেই হবে না; বাজেটও লাগবে। সেজন্য নানান হাত ঘুরে আসার কারণে নাটকের বাজেটও কমে যাচ্ছে। বিভিন্নভাবেই পতন হচ্ছে আর-কি।
বিটিভিতে আবারো ‘বহুব্রীহি’ ও ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটক প্রচার হচ্ছে? এ নিয়ে কি বলবেন? তিনি বলেন, অবশ্যই ভালো উদ্যোগ। এগুলো তো আমাদের টেলিভিশনের ঐতিহ্যবাহী প্রডাকশন। পুনঃপ্রচার করা উচিত। নতুন প্রজন্ম দেখুক, কী ধরনের নাটক হতো আগে। এছাড়া প্যাকেজে আসার পরেও ভালো ভালো কাজ হয়েছে, সেসব নাটকও দেখাতে পারে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT