বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ডাকোটায় বাংলাদেশ নাইট উদযাপিত

প্রকাশিত : ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ণ, ১৬ জুন ২০২৩ শুক্রবার ৫৩ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :

সাড়ে সাত হাজার মাইল দূরের প্রেইরি ভূমি গ্রান্ড ফোর্ক্সে দাঁড়িয়ে সবাই মিলে জাতীয় সংগীত গাওয়ার অনুভূতি লিখে প্রকাশ করা আসলেই অসম্ভব। মঞ্চে আমরা ক’জন দাঁড়িয়ে অর্কেস্ট্রার তালে তাল মিলিয়ে বুকে হাত দিয়ে গাচ্ছি, ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি….’। শ’দুয়েক বিদেশি অতিথি আমাদের দিকে তালিয়ে আছেন। মন্ত্রমুগ্ধের মতো শুনছেন। আর সাইড স্ক্রিনে সাবটাইটেল মিলাচ্ছেন। অনেকেই তাদের জীবনে প্রথমবারের মতো শুনলেন বাংলা শব্দ। বাংলা ভাষা। বাংলাদেশ। উপস্থিত অতিথিদের একজন ড. ক্যাটলিন তো বলেই ফেললেন, ‘তোমাদের ভাষা কি মিষ্টি! বুঝি না। কিন্তু তবুও শুনতে ভালো লাগে।’

Advertisement

বাংলাদেশ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ডাকোটার (ইউবিডিএসএ-ইউএনডি) উদ্যোগে গত ২৬ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেমোরিল ইউনিয়নের বিগ বল রুমে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়- ‘বাংলাদেশ কালচারাল নাইট’। বিভিন্ন পরিবেশনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা বিদেশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরেছিল বাংলাদেশি কালচার। এসবের মধ্যে ছিল গান, নাচ, আবৃত্তি, বিউটিফুল বাংলাদেশ নিয়ে ডকুমেন্টারি ও ফ্যাশন শো।

বিকেল ৫টায় বল রুমের দরজা সবার জন্য উন্মুক্ত করা হয়। মূল স্টেজের ডান পাশে ৬ ঋতুর আইডিয়া নিয়ে তৈরি করা হয় ৬টি ইনফরমেশন বুথ। যেসব বুথে ফুটিয়ে তোলা হয় বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, দর্শনীয় স্থান, বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিসহ আরও অনেক কিছু। বিদেশি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা এসব বুথ ঘুরে ঘুরে দেখেন। বাংলাদেশ নিয়ে আরও জানার আগ্রহে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। অনেকে আবার বাংলাদেশ ভ্রমণের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

সন্ধ্যা ৬টা। মূল মঞ্চের আলো জ্বলে ওঠে। একপাশ দিয়ে শামসুল ইসলাম আর অন্য পাশ নিয়ে শারমিন মঞ্চে উঠে আসে। তাদের সাথে অনুষ্ঠান পরিচালনায় আরও যোগ দেন শাকিলা ও সালাহউদ্দিন। লাল-সবুজের মঞ্চে স্বাগত জানান সবাইকে। শুরুতেই শর্ট ডকুমেন্টারির মাধ্যমে দেখানো হয় ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’। এর পর এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা ড. তৌফিক মাহমুদ, সহযোগী অধ্যাপক, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ডাকোটা স্বাগত বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা স্বেচ্ছাসেবী কাজ করে অর্থ সংগ্রহ করে আজকের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। বাংলাদেশকে সবার সামনে তুলে ধরতেই তাদের এই প্রচেষ্টা। শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও তারা বাংলাদেশকে হৃদয়ে ধারণ করে।

এর পরই শুরু হয় অনুষ্ঠানের মূল পর্ব, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। দলীয় গানের মাধ্যমে বলা হয় ‘এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি, সকল দেশের রানী সে যে আমার জন্ম ভূমি …’। পেশাদার শিল্পী না হলেও নিশাতের নৃত্য সবার মন ছুঁয়ে যায়। একে একে বিভিন্ন পরিবেশনা নিয়ে মঞ্চে আসেন অমৃতা, রাফসান, ইমতিয়াজ, শাকিলা, নেসা, লাবিবা, সৌমিক, ফয়সাল, আইরিন, রাবেয়া, ঋদ্ধি, শোভা ও সালাহউদ্দিন। সব শেষে চমক ছিল বাংলাদেশি পোশাক নিয়ে ফ্যাশন শো। আগত অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্তি ঘোষণা করেন এসোসিয়েশনের সভাপতি সিনা ইবনে আহমেদ।

অনুষ্ঠান সুন্দরভাবে পরিচালনা (মঞ্চ সজ্জা, সাউন্ড সিস্টেম, লাইট, ভিডিও, ফটোগ্রাফি ও খাবার) করতে সহযোগিতা করেন রাহাত, রেদোয়ান, কায়সার, রুম্মন, তানজিম, ফারিসতা, মরিয়ম, ওয়েন্তি ও লিখন। সব মিলিয়ে ইউএনডিতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টার সফল আয়োজন ‘বাংলাদেশ নাইট ২০২৩’।

উল্লেখ্য, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ডাকোটায় বর্তমানে ৪৫ জন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত।

মুহাম্মদ সালাহউদ্দিন
পিএইচডি শিক্ষার্থী
এডুকেশনাল ফাউন্ডেশন এন্ড রিসার্চ, ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ডাকোটা।
muhammad.salahuddin@und.edu

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি anusandhan24.com'কে জানাতে ই-মেইল করুন- anusondhan24@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

anusandhan24.com'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।



এই বিভাগের জনপ্রিয়

ইরানি বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিককে দীর্ঘদিন বন্দি রাখার পর মুক্তি দিয়েছে তেহরান। ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে যুক্তরাজ্য ৪০ কোটি পাউন্ড ইরানের কাছে হস্তান্তরের পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।     বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুক্তির পর নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরি যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছেন।  নাজানিন জাঘারি প্রায় ছয় বছর ধরে ইরানে বন্দিজীবন কাটিয়েছেন। সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।  নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরিকে বহনকারী প্লেন অক্সফোর্ডশায়ারের ব্রিজ নর্টন ব্রিটিশ সামরিক বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করে। এর আগে তারা ওমানে সাময়িক সময়ের জন্য যাত্রা বিরতি নেন।  তারা একসঙ্গেই প্লেন থেকে নেমে আসেন এবং বিমানবন্দরে প্রবেশের পর পর উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে হাত নাড়েন। এদিকে মার্কিন নাগরিকত্ব থাকা মোরাদ তাহবেজ নামে আরও একজনকেও কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।  বুধবার তাদের মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ত্রাস এবং প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।   এ বিষয় ইরানের গণমাধ্যম জানিয়েছে, এর আগে ইরানের কাছে ইসলামি বিপ্লবের আগে অর্থাৎ প্রায় ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে ব্রিটিশ সরকার তেহরানকে ৪০ কোটি পাউন্ড (৫২০ মিলিয়ন ডলার) প্রদান করেছে।  ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, এটি নিশ্চিত করতে পেরে আমি খুব খুশি, নাজানিন জাঘারি এবং আনোশেহ আশোরিকে অন্যায়ভাবে বন্দি রাখার দিন শেষ হয়েছে। তারা মুক্তি পেয়ে যুক্তরাজ্যে ফিরেছে।

ইরানি বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিককে দীর্ঘদিন বন্দি রাখার পর মুক্তি দিয়েছে তেহরান। ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে যুক্তরাজ্য ৪০ কোটি পাউন্ড ইরানের কাছে হস্তান্তরের পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, মুক্তির পর নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরি যুক্তরাজ্যে পৌঁছেছেন। নাজানিন জাঘারি প্রায় ছয় বছর ধরে ইরানে বন্দিজীবন কাটিয়েছেন। সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। নাজানিন জাঘারি ও আনোশেহ আশোরিকে বহনকারী প্লেন অক্সফোর্ডশায়ারের ব্রিজ নর্টন ব্রিটিশ সামরিক বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করে। এর আগে তারা ওমানে সাময়িক সময়ের জন্য যাত্রা বিরতি নেন। তারা একসঙ্গেই প্লেন থেকে নেমে আসেন এবং বিমানবন্দরে প্রবেশের পর পর উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে হাত নাড়েন। এদিকে মার্কিন নাগরিকত্ব থাকা মোরাদ তাহবেজ নামে আরও একজনকেও কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বুধবার তাদের মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ত্রাস এবং প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এ বিষয় ইরানের গণমাধ্যম জানিয়েছে, এর আগে ইরানের কাছে ইসলামি বিপ্লবের আগে অর্থাৎ প্রায় ৪৩ বছর আগের দেনা হিসেবে ব্রিটিশ সরকার তেহরানকে ৪০ কোটি পাউন্ড (৫২০ মিলিয়ন ডলার) প্রদান করেছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, এটি নিশ্চিত করতে পেরে আমি খুব খুশি, নাজানিন জাঘারি এবং আনোশেহ আশোরিকে অন্যায়ভাবে বন্দি রাখার দিন শেষ হয়েছে। তারা মুক্তি পেয়ে যুক্তরাজ্যে ফিরেছে।

© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। anusandhan24.com | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT